রবিউস সানী-১৪৩৩   ||   মার্চ-২০১২

আবনাউল মারকাযের প্রতি চিঠি তাওহীদের উপর কী পড়বেন কীভাবে পড়বেন

মাওলানা মুহাম্মাদ আব্দুল মালেক

বান্দার মুহতারাম বন্ধুগণ!

السلام عليكم ورحمة الله وبركاته

الحمد لله على العافية، وأسأل الله العظيم العافية لكم وللمسلمين جميعا، أما بعد

আপনারা জানেন যে, গত ১৭ সফরুল মুযাফফর ১৪৩৩ হি. মোতাবেক ২৯ পেৌষ ১৪১৮ বাংলা ও ১২ জানুয়ারি ২০১২ ঈ. বৃহস্পতিবার মুআসসাসাতু আবনাইল মারকাযের পক্ষ হতে আবনাউল মারকাযকে দাওয়াত করা হয়েছিল। মারকাযুদ দাওয়াহ আলইসলামিয়া ঢাকা পল্লবীতে অনুষ্ঠিত আবনাউল মারকাযের ঐ মজলিসে ফয়সালা হয়েছিল যে, রজবুল মুরাজ্জাবের শেষ দশকের শুরুতে মারকাযুদ দাওয়াহর সকল সন্তান দুই দিনের জন্য মারকাযে একত্র হবেন। এই জোড় একই সাথে ইলমী, ইসলাহী ও ইনতিযামী বিষয়াদিতে মশোয়ারার জোড় হবে। তো ১৪৩৩ হিজরীর জোড়ের জন্য ৯ ও ১০ জুন ২০১২ ঈ. শনিবার ও রবিবার নির্ধারণ করা হয়েছে। শনিবার সকাল ৯টা থেকে রবিবার মাগরিব পর্যন্ত ইনশাআল্লাহুল আযীয এই জোড় চলবে। স্থান, মারকাযুদ দাওয়াহর প্রধান প্রাঙ্গণ হযরতপুর, কেরাণীগঞ্জ। জোড়ের ইলমী মজলিসের বিষয়বস্ত্ত নির্ধারিত হয়েছে তাওহীদ।

মুআসসাসার পক্ষ থেকে আমাকে আদেশ করা হয়েছে যে, এই বিষয়ের কিছু গুরুত্বপূর্ণ শিরোনাম এবং সেসব শিরোনামের সাথে সংশ্লিষ্ট কিছু গুরুত্বপূর্ণ মাসদারের নাম উল্লেখ করে আপনাদেরকে চিঠি লেখার। সে আদেশ পালনার্থেই এ চিঠি লেখা হচ্ছে।

বেরাদরানে মুহতারাম!

তাওহীদ ইসলামের সর্বপ্রথম ও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা। মাশাআল্লাহ সব তালিবে ইলমের মতো আপনারাও কুরআন-সুন্নাহয় বিশেষভাবে তাওহীদ-প্রসঙ্গটি অধ্যয়ন করেছেন। কুরআন-সুন্নাহর আলোকে সালাফ ও খালাফ যেসকল কিতাব রচনা করেছেন সেগুলোর নির্বাচিত একটি অংশও সম্ভবত আপনারা অধ্যয়ন করেছেন। কিন্তু বিষয়টি যেহেতু অতি গুরুত্বপূর্ণ তাই এ বিষয়ে পাঠ ও মুতালাআ জারি রাখা প্রয়োজন। এ কারণে মুআসসাসাতু আবনাইল মারকাযের এই প্রস্তাব আমার কাছে যৌক্তিক মনে হয়েছে। আমার নিজের ফায়েদার জন্য কিছু কথা আরজ করছি।

কিছু কাজ সব সাথীর করা উচিত

১. এ বিষয়ে কিছু গুরুত্বপূর্ণ কিতাব পাঠ করা

أـ تقوية الإيمان، شاه إسماعيل شهيد رحمه الله تعالى (١١۹۳-١٢٤٦ هـ)

মাওলানা গোলাম রসূল মেহের-এর তাহকীককৃত নুসখা, কিংবা হযরত মাওলানা সাইয়েদ আবুল হাসান আলী নদভী রাহ.-এর তাহকীক ও হাশিয়া ওয়ালা নুসখা পাওয়া গেলে উত্তম, নতুবা যে এডিশনই পাওয়া যাক। কিতাবটি বারবার মনোযোগের সাথে পাঠ করা উচিত। মাওলানা আবুল হাসান আলী নদভী রাহ. কিতাবটির আরবী তরজমা করেছেন, যা রিসালাতুত তাওহীদ নামে প্রকাশিত হয়েছে।

ب ـ كتاب التوحيد الذي هو حق الله على العبيد، شيخ محمد بن عبد الوهاب نجدي (١١١٥-١٢۰٦ هـ)

এই দুটি কিতাবের শিক্ষা ও নির্দেশনা মৌলিকভাবে এক হওয়ার কারণে উপমহাদেশের বাদায়ুনী ও বেরেলভী ঘরানার বিদআতীরা প্রচার করে রেখেছে যে, তাকবিয়াতুল ঈমান হচ্ছে কিতাবুত তাওহীদ-এর তরজমা বা মুখতাসার। কিন্তু কেউ যদি দুটো কিতাবই পাঠ করেন তাহলে আসমান-যমীনের পার্থক্য দেখতে পাবেন।

বিদআতীদের এই সকল অপপ্রচারের স্বরূপ বোঝার জন্য এবং সংশ্লিষ্ট আরো অনেক কিছু মানার জন্য হযরত মাওলানা মানযূর নুমানী রাহ.-এর পুস্তিকা অবশ্যই পাঠ করুন। পুস্তিকাটি হিন্দুস্তানে

شيخ محمد بن عبد الوہاب كے خلاف پروپگنڈے

এবং পাকিস্তানে شيخ محمد بن عبد الوہاب اور ہندوستاں كے علماء حق নামে প্রকাশিত হয়েছে। আরবী অনুবাদ  الدعايات المكثقة  নামে প্রকাশিত হয়েছে।

ج ـ توحيد اور شرك كى حقيقت

মাওলানা সাইয়েদ নূরুল হাসান শাহ ছাহেব বুখারী, মাকতাবা ওমর ফারুক, উর্দূ বাজার, লাহোর।

নিম্নোক্ত কিতাবসমূহ থেকে সংশ্লিষ্ট আলোচনা 

٭ كلمہ طيبہ كى حقيقت، مولانا محمد منظور نعمانى رح

٭ اسلام كيا ہے، مولانا محمد منظور نعمانی رح.

٭ قرآن آپ سے كيا كہتا ہے، مولانا محمد منظور نعمانی رح.

٭ دين وشريعت، مولانا محمد منظور نعمانی رح.

٭ دستور حيات، مولانا سيد ابو الحسن على ندوى رح.

২. তাওহীদ ও শিরক বিষয়ে কুরআন মজীদের কিছু সারগর্ভ আয়াত এবং নির্বাচিত হাদীস ডায়েরীতে নোট করে মুখস্থ করা এবং তাফসীর ও শরহে হাদীসের কিতাবে তা পাঠ করা। বিশেষত এ বিষয়টি আলোচনার সময় যেসব আয়াত ও হাদীস বারবার আসে। উদাহরণস্বরূপ কিছু আয়াত উল্লেখ করছি।

 

اياك نعبد واياك نستعين (١:٤)

وما خلقت الجن والانس الا ليعبدون (٥١ : ٥٦)

الم اعهد اليكم يبنى آدم ان لا تعبدوا الشيطان انه لكم عدو مبين، وان اعبدونى هذا صراط مستقيم (۳٦ : ٦۰-٦١)

اتخذوا احبارهم ورهبانهم اربابا من دون الله (۹ : ۳١)

এভাবে ২ : ২৫৬-২৫৭; ৪ : ৫১-৫২, ৫৯-৬১; ৫: ৪২-৫০; ৯: ১২৯; ৩৯ : ৩৮; ৮ : ৬৪সহ অন্যান্য আয়াত।

৩. আলআসমা ওয়াস সিফাতের উপর কিছু কিতাব অধ্যয়ন যেমন-

الأسماء والصفات، بيهقي (٤٥۸ هـ)

তাহকীক ও তালীক মুহাম্মাদ যাহিদ কাওছারী (১৩৭১ হিজরী)

*فقه الأسماء الحسنى، عبد الرزاق بن عبد المحسن البدر

 *المقصد الأسنى في شرح الأسماء الحسنى، أبو حامد غزالي ( 505 هـ)

এছাড়া এ বিষয়ে আমি কিছু শিরোনাম উল্লেখ করছি, যেগুলোর কোনো কোনো অতি গুরুত্বপূর্ণ, কোনো কোনোটি তুলনামূলক কম গুরুত্বপূর্ণ। কিছু বিষয় তাওহীদ-বিরোধী বা তাওহীদের অপব্যাখ্যাকারী সম্প্রদায়ের অপপ্রচারের কারণে আলোচনায় আসে। কিছু শিরোনাম غلو في التوحيد -এর সমর্থকদের গুলু ও বাড়াবাড়ির কারণে আলোচনায় আসে। দেখুন, গুলু ফিত তাওহীদ আর কামাল ফিত তাওহীদ এক জিনিস নয়। কামাল ফিত তাওহীদ বা তাওহীদের ক্ষেত্রে পূর্ণতা তো কাম্য, কিন্তু গুলু ফিত তাওহীদ বা তাওহীদকেন্দ্রিক বাড়াবাড়ি কাম্য নয়।

মনে রাখুন, এখানে কিছু শিরোনাম পরস্পর মুতাদাখিল, কিছু শিরোনাম পরস্পর মুতালাযিম। বিষয়টি যেহেনে থাকা উচিত।

আমি শুধু মূল শিরোনাম উল্লেখ করব। আপনারা শাখা শিরোনাম তৈরি করে নিবেন ও সংশ্লিষ্ট কিতাবসমূহ তালাশ করে মুতালাআ করবেন। এরপর মুতালাআর সারসংক্ষেপ মাকালা আকারে লিখে মজলিসে  নিয়ে আসবেন এবং আমাদেরকে উপকৃত করবেন। আপনারা যদিও আবনা কিন্তু আবনাউল কুততাব তো নন যে, মকতবের শিশুদের মতো শব্দে শব্দে পড়াতে হবে।

কাজটি যাতে সহজ ও সুশৃঙ্খল হয় এজন্য যে সাথী যে শিরোনাম নির্বাচন করবেন তা মুআসসাসার দায়িত্বশীলদের অবহিত করলে ভালো হবে। যাতে গুরুত্বপূর্ণ কোনো শিরোনাম বাদ পড়ে না যায়। শিরোনামগুলো বিশেষ কোনো তারতীব ছাড়াই উল্লেখ করছি।

* توحيد الربوبية * توحيد الألوهية * توحيد في التشريع * توحيد الأسماء والصفات * توحيد في العبادات الظاهرة والعبادات الباطنة * توحيد في الدعاء والاستعانة * عقيدة التوحيد في القرآن الكريم * عقيدة التوحيد في السنة النبوية وآثار السلف * الآثار الحسنة للكمال في التوحيد * الآثار السيئة لنقص في عقيدة التوحيد * نواقض التوحيد * نواقص التوحيد * شرح كلمة التوحيد * شروط لا إله إلا الله * علاقة الجزء الثاني من الكلمة بعقيدة التوحيد * التوحيد والإيمان بالقدر * التوحيد والتعامل مع الأسباب * الصور الجديدة من نواقض التوحيد * دلائل التوحيد في القرآن الكريم * ترجيح أساليب القرآن على اساليب اليونان * الواسطة بين الحقِّ تعالى وبين الخلق * مسألة سد الذرائع في نواقض التوحيد ونواقصه * الكمال في التوحيد والغلو في التوحيد * التوحيد والتثليث * التوحيد وتحريف البريلويين * التوحيد وتحريف الصوفية المبطلين * التوحيد وتحريف المتكلمين المبتدعين * التوحيد والأشاعرة والماتريدية * التوحيد والعلمانية * التوحيد وخدمات أكابر أهل السنة الجماعة في شبه القارة الهندية لحمايته، وخدمات أكابر علماء العرب أيضا، وما اتهم به بعضهم بالإفراط او التفريط.

আপাতত এই ত্রিশটি শিরোনাম উল্লেখ করলাম। আল্লাহ তাআলা আমাদেরকে পাক্কা তাওহীদপন্থী বানিয়ে দিন এবং জানা-অজানা, প্রকাশ্য-অপ্রকাশ্য সব ধরনের শিরক থেকে হিফাযত করুন। আমীন

আরযগুযার

বান্দা মুহাম্মাদ আবদুল মালেক

২ রবিউস সানী, ১৪৩৩ হিজরী

 

 

 

 

 

advertisement