রবিউল আউয়াল ১৪৪২   ||   নভেম্বর ২০২০

সবচেয়ে নিকৃষ্ট হল দু-মুখওয়ালা মানুষ

উম্মে হাবীবা তামান্না

ছোট্ট মনিরা! কী, অবাক হচ্ছো? তাই বুঝি এমন বিস্ময়ভরা বড় বড় চোখে তাকিয়ে আছ শিরোনামটির দিকে! দু-মুখওয়ালা মানুষ!

বাপরে, কী ভয়ংকর না জানি দেখতে! সাথে আবার শিংও আছে নাকি! মনে হয় দেখতে দৈত্যের মতো! কী খায় এরা! মানুষ খায় বুঝি! ছোট ছোট বাচ্চাদেরকে পেলে তো মনে হয় আস্তই গিলে খায়!

এত ঘাবড়াবার কিছু নেই ছোট্ট বন্ধু! দু-মুখওয়ালা মানুষ দেখতে তোমার মতই মানুষ। দৈত্য নয়। তবে এরা সব খেয়ে শেষ করে ফেলে!

এ কী? আবার শিউরে উঠলে যে! ভেবেছ ওরা তোমাকে খেয়ে ফেলবে? না, ওরা মানুষ খায় না। ছোট্ট বাচ্চাদেরকেও খায় না। তাহলে কী খায় ওরা, জানতে চাও?

ওরা নিজেরাই নিজেদের সব আমল খেয়ে ফেলে। টুকটাক কষ্ট করে যে কয়টা ভালো কাজ ওরা করে; এর প্রতিদান হিসাবে আল্লাহ তাদের যে সওয়াব দান করেন- সবই খেয়ে ফেলে ওরা। অন্যের গীবত করে, একে অপরের মাঝে দ্বন্দ্ব লাগিয়ে নিজেদের সব আমল ধ্বংস করে দেয়।

মজার কথা কী জানো? এদেরকে দু-মুখওয়ালা বলা হলেও এদের মুখ কিন্তু মানুষের মতো একটাই। তাহলে ওদেরকে দু-মুখওয়ালা বলা হয় কেন? কারণ ওরা একজনের কাছে গিয়ে একরকম বলে, সামনে তার প্রশংসা করে, তার শত্রুর বদনাম করে। সে বোঝায় যে, আমি তোমার সাথে আছি, তোমার ভালো চাই। তোমার শত্রুকে পছন্দ করি না। আবার তার শত্রুর কাছে গিয়েও এরকম বলে; বোঝায় যে আমি তোমার সাথে আছি, ওর সাথে নয়। সাথে সাথে একজনের বিরুদ্ধে অন্যজনকে খেপিয়ে তোলে আর সবার কাছেই ভালো সাজতে চায়। দুজনের কাছে দুই রকম আচরণ করে, দুই রকম চেহারা তার; তার এই দ্বিমুখী আচরণের কারণেই প্রিয় নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাকে ‘দু-মুখওয়ালা’ বা দুই চেহারাওয়ালা বলেছেন। নবীজী বলেছেন-

إِنّ مِنْ شَرِّ النّاسِ، ذَا الْوَجْهَيْنِ، الّذِي يَأْتِي هَؤُلَاءِ بِوَجْهٍ، وَهَؤُلَاءِ بِوَجْهٍ.

সবচেয়ে নিকৃষ্ট মানুষ হল দুই চেহারার মানুষ। এদের কাছে এক চেহারা, ওদের কাছে আরেক চেহারা। (অর্থাৎ দ্বিমুখি আচরণ করে।) -সহীহ মুসলিম, হাদীস ২৫২৬

এ ধরনের মানুষ আল্লাহ্র নিকট যেমন অপছন্দনীয়, তেমনি মানুষও তাদের ঘৃণা করে। কেউ তাদেরকে  দেখতে পারে না। প্রকাশ্যে হয়তো ভালো ব্যবহার করে, কিন্তু বাস্তবে সবাই তাদেরকে ঘৃণা করে। তার এ অন্যায় কাজ একদিন না একদিন সবার কাছে প্রকাশ পেয়ে যায়। ফলে কেউ আর তাকে বিশ্বাস করতে পারে না।

আল্লাহ আমাদেরকে এধরনের লোক থেকে দূরে রাখুন এবং এই গুনাহ থেকেও আমাদের দূরে রাখুন- আমীন।

 

 

advertisement