রজব ১৪৩১ || জুলাই ২০১০

মুহাম্মাদ জহিরুল ইসলাম - জামিআতুল আবরার, কামরাঙ্গিরচর, ঢাকা

প্রশ্ন

হযরত তাকী উসমানী দামাত বারাকাতুহুম-কৃত উলূমুল কুরআন-এর ৩৩০ পৃষ্ঠায় ‘তাফসীরুল কুরআন বিলকুরআন’ এর একটি নীতি উল্লেখ করা হয়েছে। তা এই যে, কখনো কোনো বিষয় এক কিরাতে মুবহাম থাকলে অন্য কিরাত দ্বারা স্পষ্ট হয়ে যায়। যেমন : فاغسلوا وجوهكم وايديكم الى المرافق وامسحوا برؤوسكم وارجلكم الى الكعبين. এই আয়াতে ارجلكم শব্দে ‘জর’ ও ‘নসব’ দুই কিরাত রয়েছে। জরের সূরতে তরজমা দুই ভাবে হয় : ক. তোমরা মাথা মাসেহ কর এবং পা ধৌত কর, খ. মাথা ও পা মাসেহ কর। অতএব আয়াতের মর্ম মুবহাম। কিন্তু নসবের ক্ষেত্রে তরজমা নির্দিষ্ট ও স্পষ্ট। ফলে তা জরের সূরতের অস্পষ্টতাকে দূর করেছে। অর্থাৎ জরের সূরতে প্রথম অর্থই উদ্দেশ্য। এখন প্রশ্ন হল, জরের সূরতে দ্বিতীয় তরজমা তো رؤوسكم এর উপর আতফ হিসাবে। কিন্তু প্রথম তরজমা (তোমরা মাথা মাসেহ কর এবং পা ধৌত কর) কীভাবে হয়েছে-তা বুঝতে পারছি না। দয়া করে জানিয়ে বাধিত করবেন।

উত্তর

বিষয়টি উলূমুল কুরআনে কিছুটা সংক্ষিপ্ত আকারে বলা হয়েছে। পূর্ণ বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়নি। সেজন্য আপনি উস্তাদে মুহতারামের তাকরীরের সংকলন ‘দরসে তিরমিযী’র (উর্দূ) ১/২৫৩-২৫৬ পর্যন্ত আলোচনাটি পড়তে পারেন। বিষয়টি সহজেই বোধগম্য হবে বলে আশা রাখি।

এই সংখ্যার অন্যান্য শিক্ষা পরামর্শসমূহ পড়ুন

advertisement
advertisement