মুহাররম ১৪৪১ || সেপ্টেম্বর ২০১৯

আবদুুল হালীম - জামালপুর

৪৮৬৫. প্রশ্ন

জুমার নামাযের খুতবা জুমার নামাযের মতোই গুরুত্বপূর্ণ বলে আলেমদের মুখে শুনেছি। আমাদের মসজিদের যিনি খতীব, সাধারণত তিনিই খুতবা দেন এবং নামায পড়ান। কিছুদিন আগে এক জুমায় খুতবা দেওয়ার পর তিনি হাম্মামের জরুরতে মসজিদ থেকে বের হয়ে গেলেন। আর উপস্থিত একজনকে ইমামতির দায়িত্ব অর্পণ করলেন। আমার জানার বিষয়, পরে যিনি নামায পড়ালেন তার ইমামতিতে কি আমাদের জুমা পূর্ণাঙ্গভাবে আদায় হয়েছে? যেহেতু খুতবা তিনি দেননি, তিনি ছিলেন কেবল শ্রোতা। জানালে উপকৃত হব।

উত্তর

হাঁ, ঐ ব্যক্তির পেছনে আপনাদের জুমা সহীহ হয়েছে। কেননা, জুমার ইমামতি সহীহ হওয়ার জন্য ইমামের খুতবা দেওয়া শর্ত নয়; বরং খুতবা চলাকালীন উপস্থিত থেকেছেন এমন যে কোনো উপযুক্ত ব্যক্তি জুমার ইমামতি করতে পারে। অবশ্য খুতবা প্রদানকারী এবং ইমাম একই ব্যক্তি হওয়া উত্তম। বিনা ওজরে অন্যকে ইমাম বানানো অনুত্তম।

-আলমাবসূত, সারাখসী ২/২৬; বাদায়েউস সানায়ে ১/৫৯৫; আলমুহীতুল বুরহানী ২/৪৫৫; আলবাহরুর রায়েক ১/২৫৫; ফাতাওয়া বাযযাযিয়া ৪/৭৫; রদ্দুল মুহতার ২/১৪১

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement