যিলহজ্ব ১৪৪০ || আগস্ট ২০১৯

আবদুর রহমান - খুলনা

৪৮৫৩. প্রশ্ন

আমার একটি বদঅভ্যাস আছে। আমি জানি তা বড় গুনাহের কাজ। কিন্তু ইচ্ছা-অনিচ্ছায় তা করে ফেলি। অনেক দিন ধরে চেষ্টা করছি, যেন তা থেকে পুরোপুরি মুক্ত হতে পারি। বিভিন্ন সময়ে অনেক প্রতিজ্ঞাই করেছি। একবার ঐ মন্দ কাজটি করার কারণে রাগে এ বলে প্রতিজ্ঞা করি যে, যদি সামনে কখনো এ কাজ করি তবে আমার উপর আল্লাহর গযব! আল্লাহর লানত!

আমাদের মসজিদের ইমাম সাহেবের সঙ্গে এ কথা নিয়ে আলোচনা করলে তিনি বলেন, এমন কথা বললে তা কসম হয়। তাই তোমাকে এ কাজ থেকে অবশ্যই বিরত থাকতে হবে নতুবা কাফফারা আবশ্যক হবে। কিন্তু আমি কিছুদিন পরই তা করে ফেলি। এখন মুফতী সাহেবের নিকট জানতে চাচ্ছি যে, আসলেই কি এ কাজ করার কারণে আমার উপর কাফফারা ওয়াজিব হয়েছে? সঠিক মাসআলাটি জানালে উপকৃত হতাম।

উত্তর

ইমাম সাহেবের কথাটি ঠিক নয়। উক্ত কথা বলার দ্বারা কসম সংঘটিত হয়নি। তাই কাজটি করে ফেলার কারণে আপনার উপর কোনো কাফফারা ওয়াজিব হয়নি।

উল্লেখ্য যে, গুনাহের কাজ থেকে বিরত থাকার সর্বাত্মক চেষ্টা করা জরুরি। কিন্তু তাই বলে এমন ক্ষেত্রেও নিজের উপর লানত করা মারাত্মক অন্যায় ও গুনাহ। অতএব এমন কথা বলার কারণে আল্লাহ তাআলার নিকট তওবা-ইস্তিগফার করতে হবে এবং ভবিষ্যতে সতর্ক থাকতে হবে।

-কিতাবুল আছল ২/২৭৭; ফাতাওয়া খানিয়া ২/৩-৪; ফাতহুল কাদীর ৪/৩৬৩; মাজমাউল আনহুর ২/২৭২; রদ্দুল মুহতার ৩/৭২১

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement