শাওয়াল ১৪৩৯ || জুলাই ২০১৮

আবদুল কাদির - চড়িপাড়া মাদরাসা, সিলেট

৪৪৮৯. প্রশ্ন

একদিন এক বন্ধুর সাথে রেগে গিয়ে একটি বিষয়ে ‘কাজটি করব না’ বলে কসম করি। পরের দিন সে আবার প্রসঙ্গটি উঠালে আমি গুরুত্ব বুঝানোর জন্য আবারো কসম করে একই কথা বলি। এমনভাবে অন্য একজনের সাথে আলাপকালে ঐ বিষয়ে একই ধরনের কসম করি। কিন্তু পরে ঐ বন্ধুর চাপাচাপিতে বাধ্য হয়ে কাজটি করে ফেলি। জানার বিষয় হল, এখন আমাকে কি প্রতিটি কসমের জন্য আলাদা আলাদা কাফফারা দিতে হবে, না সবক’টির জন্য একটা কাফফারা দিতে হবে?

উত্তর

প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে দ্বিতীয় ও তৃতীয়বার কসম করার সময় যদি প্রথম কসমটিকেই ব্যক্ত করা উদ্দেশ্য হয়ে থাকে তাহলে সবগুলো মিলে একটি কসমই গণ্য করা হবে এবং একটি কাফফারা দিতে হবে। কিন্তু যদি প্রথম কসমটিকেই বারবার বলা উদ্দেশ্য না হয় বরং প্রত্যেকবার পৃথক কসম করে থাকেন তাহলে প্রতিবারের উল্লেখিত বাক্য স্বতন্ত্র কসম ধরা হবে এবং প্রতিটি কসমের জন্য আলাদা আলাদা কাফফারা দিতে হবে।

-কিতাবুল আছল ২/২৯৭; আলমাবসূত, সারাখসী ৮/১৫৭; ফাতাওয়া তাতারখানিয়া ৬/২৯; রদ্দুল মুহতার ৩/৭১৪

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement