শাওয়াল ১৪৩৯ || জুলাই ২০১৮

মুহাম্মাদ আবদুর রহীম - জালালাইন, নাজিরপুর মাদরাসা, নোয়াখালী

প্রশ্ন

আমি একটি সমস্যার সম্মুখীন হয়েছি। ফলে জরুরি ভিত্তিতে আমাকে ইলমুল আকায়েদের প্রাথমিক মুতালাআ করতে হচ্ছে। এই মুতালাআর পদ্ধতি কী হবে, কী কী কিতাবের সাহায্যে হলে ভাল হবে?! জানালে খুবই উপকার হবে। আল্লাহ আপনাকে দীর্ঘ নেক হায়াত দান করুন।

উত্তর

আপনি সমস্যাটির কথা স্পষ্ট করে বলেননি। বললে পরামর্শ দেয়া সহজ হত। আপনি প্রথমত এ ব্যাপারে আলকাউসারে প্রকাশিত প্রবন্ধটি পড়ে নিতে পারেন, যা মার্চ ২০০৫ঈ. সংখ্যায় ‘আকীদা বিশুদ্ধ করা সর্বপ্রথম ফরয’ শিরোনামে ছাপা হয়েছিল। এখন এটি মারকাযুদ দাওয়াহ্র প্রকাশনা বিভাগ থেকে সম্প্রতি প্রকাশিত ‘নির্বাচিত প্রবন্ধ’ গ্রন্থের প্রথম প্রবন্ধ। এতে আপনি এ সম্পর্কে জরুরি কিছু নির্দেশনা পেয়ে যাবেন ইনশাআল্লাহ।

মনে রাখতে হবে, আকীদা সম্পর্কে অধ্যয়নের বিভিন্ন স্তর ও পর্যায় এবং বিভিন্ন দিক রয়েছে।

তালিবে ইলমগণ এব্যাপারে উস্তাযের নেগরানীতে পর্যায়ক্রমে মুতালাআ জারি রাখতে পারেন।

প্রাথমিক পর্যায়ে হাকীমুল উম্মত মাওলানা আশরাফ আলী থানভী রাহ.-এর ‘তালীমুদ্দীন’ ও বেহেশতী জেওর (আকায়েদ অধ্যায়) দ্বারা মুতালাআ শুরু করতে পারেন। তারপর আরেকটু বিস্তারিত জানার জন্য মাওলানা ইদরীস কান্ধলভী রাহ.-এর ‘আকাইদুল ইসলাম’ এবং আবদুল হক হক্কানী রাহ.-এর ‘আকায়েদে ইসলাম’ মুতালাআ করতে পারেন। আর তাওহীদ ও শিরক সম্পর্কে মাওলানা মনযূর নুমানী রাহ.-এর চারটি কিতাব-

১. কালিমায়ে তায়্যেবাহ কী হাকীকত ২. ইসলাম কিয়া হ্যায়? ৩. কুরআন আপছে কিয়া কাহতা হ্যায়? ৪. দ্বীন ও শরীয়ত। মাওলানা আবুল হাসান আলী নদভী রাহ.-এর দুস্তুরে হায়াত অত্যন্ত সারগর্ভ ও মৌলিক আলোচনা সমৃদ্ধ। মারকাযুদ দাওয়াহ্র রচনা বিভাগ থেকে প্রকাশিত ‘তাসাওউফ : তত্ত্ব ও বিশ্লেষণ’ কিতাবটিতেও এ বিষয়ে বিশ্লেষণধর্মী কিছু আলোচনা রয়েছে।

এরপর ঈমান ও আকীদা সংক্রান্ত বিভিন্ন আয়াতের তাফসীর ফাওয়ায়েদে উছমানী, মুফতী শফী রাহ.-এর মাআরিফুল কুরআন এবং মাওলানা ইদরীস কান্ধলভী রাহ.-এর মাআরিফুল কুরআন থেকে মুতালাআ করতে পারেন। আর আকীদা সংক্রান্ত হাদীসসমূহের সহজ-সরল ব্যাখ্যা জানার জন্য মাওলানা বদরে আলম মিরাঠী রাহ.-এর তরজমানুস সুন্নাহ (৪ খ-) এবং মাওলানা মনযূর নুমানী রাহ.-এর মাআরিফুল হাদীস (ঈমান অধ্যায় এবং অন্যান্য অধ্যায়ে সংশ্লিষ্ট হাদীসসমূহের ব্যাখ্যা) খুবই উপকারী।

এতো হল উর্দূ ভাষায় রচিত আকীদার সহজ ও মৌলিক কিছু গ্রন্থ ও পুস্তিকা, যা আপনি সহজেই সংগ্রহ করতে পারেন। তবে বলার অপেক্ষা রাখে না, তালেবে ইলম ও আহলে ইলমের পাঠ্যতালিকায় আরবী ভাষায় পূর্ববর্তী ইমামগণের রচিত তত্ত্ব ও তথ্যপূর্ণ এবং মৌলিক গ্রন্থাদি থাকা উচিত। যেগুলো পর্যায়ক্রমে সুযোগমত মুতালাআ করতে হবে। এ ব্যাপারে এখন আর কিছু লিখছি না। পরবর্তী সময়ে মশওয়ারার মাধ্যমে জেনে নিতে পারেন। তবে আপাতত আকায়েদের নতুন ও সহজ (কিন্তু প্রামাণ্য) কিছু আরবী কিতাব সংগ্রহ করতে পারেন। যেমন সমকালীন মুহাক্কিক আলেম ড. মুস্তফা সাঈদ আলখন্ন-এর ‘আলআকীদাতুল ইসলামিয়া, শায়েখ আবূ বকর জাবির আলজাযায়িরীর ‘আকীদাতুল মুমিন’ এবং শায়েখ মাজ্দ মাক্কী-এর ‘আলবয়ান ফী আরকানিল ঈমান’ ইত্যাদি।

এই সংখ্যার অন্যান্য শিক্ষা পরামর্শসমূহ পড়ুন

advertisement
advertisement