জুমাদাল আখিরাহ ১৪৪১ || ফেব্রুয়ারি ২০২০

মুহাম্মাদ আলী - যশোর

৫০৩৩. প্রশ্ন

কিছুদিন আগে আমাদের এলাকায় এক ব্যক্তি মারা গেছে। লোকটি ছিল অবিবাহিত। তাই তার ছেলে-সন্তান স্ত্রী পরিবার-পরিজন কেউ নেই। মৃত্যুর আগে সে অসিয়ত করে গেছে, তার যাবতীয় সম্পদ মসজিদ-মাদরাসায় দিয়ে দিতে। এখন মসজিদ ও মাদরাসা কর্তৃপক্ষ উভয়ে তার সম্পদ দাবি করছে। কিন্তু মৃত ব্যক্তির ভাই তা মেনে নিচ্ছে না। মৃতের আত্মীয় বলতে শুধু তিনিই আছেন। বিষয়টি নিয়ে অনেক সমস্যা হচ্ছে। এখন আমরা সবাই (মসজিদ ও মাদারাসা কর্তৃপক্ষ ও তার ভাই) মুফতী সাহেবের শরণাপন্ন হচ্ছি, আমাদেরকে শরীয়তের সঠিক সমাধান জানিয়ে কৃতজ্ঞ করবেন।

উত্তর

লোকটি যদি তার জীবদ্দশাতে ঐ জমিন মসজিদ-মাদরাসায় দান না করে গিয়ে থাকে, বরং শুধু অসিয়ত করে থাকে তাহলে সেক্ষেত্রে ঐ সম্পদের এক তৃতীয়াংশ মসজিদ-মাদরাসা পাবে। কারণ সাধারণ নিয়মে অসিয়ত এক তৃতীয়াংশ সম্পদের ভেতরেই কার্যকর হয়। মসজিদ-মাদরাসার অংশ দেয়ার পর লোকটির যদি একজন ভাই ছাড়া আর কোনো ওয়ারিশ না থাকে তাহলে সে অবশিষ্ট পুরো সম্পদের মালিক হবে। অবশ্য মৃতের ভাই যদি স্বতঃস্ফূর্তভাবে তার অংশ থেকে আরো কিছু সম্পদ মসজিদ-মাদরাসার জন্য দিতে চায় তাহলে সেটি কার্যকর হবে এবং তা হবে উত্তম কাজ। আর প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে মসজিদ ও মাদরাসা সমান সমান জমির অধিকারী হবে।

-শরহু মুখতাসারিত তাহাবী ৪/১৬১; আলমাবসূত, সারাখসী ২৭/১৫৩; খুলাসাতুল ফাতাওয়া ৪/২২৪; আলইখতিয়ার ৪/৩৭৬; তাবয়ীনুল হাকায়েক ৭/৩৭৬; আদ্দুররুল মুখতার ৬/৬৫০; ইলাউস সুনান ১/৩০৩

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement