রবিউস সানী ১৪৪১ || ডিসেম্বর ২০১৯

ফাহীম - চাঁদপুর

৪৯৬২. প্রশ্ন

আমরা ছোটকাল থেকে শুনে আসছি যে, শেষ বৈঠকে দরূদ শরীফ পড়ার পর দুআ মাছূরা পড়তে হয়। অথচ আমাদের মসজিদের খতীব সাহেব গত জুমায় বলেছেন, নামাযের শেষ বৈঠকে প্রসিদ্ধ দুআ মাছূরা ছাড়াও কুরআন-হাদীসে বর্ণিত যে কোনো দুআ পড়া যায়। জানতে চাচ্ছি, তাঁর কথা কি ঠিক?

উত্তর

আপনাদের খতীব সাহেব ঠিকই বলেছেন। অর্থাৎ শেষ বৈঠকে দরূদ শরীফ পড়ার পর কুরআন-হাদীসে বর্ণিত যে কোনো দুআ পড়া যায়। প্রসিদ্ধ দুআ মাছূরাটিও এ সময়ে পড়ার মতো হাদীসে বর্ণিত একটি দুআ। আপনি সে দুআও পড়তে পারেন। হাদীস শরীফে এসেছে, আবু বকর সিদ্দীক রা. রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে বলেন-

عَلِّمْنِي دُعَاءً أَدْعُو بِهِ فِي صَلاَتِي، قَالَ: قُلْ: اللّهُمّ إِنِّي ظَلَمْتُ نَفْسِي ظُلْمًا كَثِيرًا، وَلاَ يَغْفِرُ الذّنُوبَ إِلّا أَنْتَ، فَاغْفِرْ لِي مَغْفِرَةً مِنْ عِنْدِكَ، وَارْحَمْنِي إِنّكَ أَنْتَ الغَفُورُ الرّحِيمُ.

আমাকে একটি দুআ শিখিয়ে দিন, যা আমি নামাযে পড়ব। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, বল-  ...اللّهُمّ إِنِّي ظَلَمْتُ। (সহীহ বুখারী, হাদীস ৮৩৪)

-শরহু মুখতাসারিত তাহাবী ১/৬৩৬; ফাতহুল কাদীর ১/২৭৭; খুলাসাতুল ফাতাওয়া ১/৫৬; হালবাতুল মুজাল্লী ২/১৯৮; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/৭৬

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন