সফর ১৪৪১ || অক্টোবর ২০১৯

আরিফ আজাদ - দোহার, ঢাকা

৪৯০৯. প্রশ্ন

আমাদের পাশের গ্রামের এক লোকের টাকার প্রয়োজন হলে সে আমার কাছ থেকে তিন মাসের জন্য ১৫ হাজার টাকা নেয় এবং তার সাথে থাকা সাইকেলটি বন্ধক রেখে যায়। আমার এক পরিচিত ব্যক্তি সাইকেলটি দেখে বলে, এটা তো আমার সাইকেল, তুমি কোথায় পেলে? আমি বিষয়টি বললে সে বলে, আমি তাকে সাইকেলটি কয়েকদিন ব্যবহারের জন্য দিয়েছিলাম। তুমি সাইকেলটি আমাকে দিয়ে দাও। ঋণের গ্যারান্টি শেষ হয়ে যাবে বলে তাকে সাইকেলটি দেইনি। জানার বিষয় হল, এভাবে সাইকেলটি বন্ধক রাখা ঠিক হয়েছে কি না? তার মালিক আমার থেকে সাইকেলটি নিয়ে যেতে পারবে কি না? জানিয়ে বাধিত করবেন।

উত্তর

লোকটির জন্য অন্যের সাইকেল বন্ধক রাখা জায়েয হয়নি। কেননা সাইকেলটি তার কাছে আমানত ছিল। আমানতের জিনিস মালিকের অনুমতি ছাড়া বন্ধক রাখা জায়েয নয়। তাই আপনার ঋণগ্রহিতার জন্য অন্যের সাইকেল বন্ধক রাখা বৈধ হয়নি। সুতরাং তার কর্তব্য হল, আপনার থেকে সাইকেলটি নিয়ে তার মালিককে ফেরত দেয়া এবং আমানতের খেয়ানত করার জন্য ঐ ব্যক্তির নিকট ক্ষমা চাওয়া। আল্লাহ তাআলার নিকট তাওবা-ইস্তিগফার করা। আর সাইকেলের মালিক সাইকেলটি নিতে চাইলে যাকে সে দিয়েছিল তার কাছ থেকে নেবে; সরাসরি আপনার থেকে নেবে না।

-আলমাবসূত, সারাখসী ২১/৭৩; তাবয়ীনুল হাকায়েক ৭/১৫৩; মাজাল্লাতুল আহকামিল আদলিয়্যা, মাদ্দা ৮২৩; শরহুল মাজাল্লাহ, খালিদ আতাসী ৩/১৭৬; রদ্দুল মুহাতার ৬/৪৯৩

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement