মুহাররম ১৪৪১ || সেপ্টেম্বর ২০১৯

সাইদ আহমদ - নকলা, শেরপুর

৪৮৮২. প্রশ্ন

আমাদের এলাকায় একটি প্রাচীন মসজিদ আছে। কয়েক বছর আগে মসজিদটিকে তাবলীগের মারকায বানানো হয়। শবগুযারিতে জায়গা হয় না। তাই মসজিদটি বড় করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। মসজিদে অনেক আগের ইসলামী ফাউন্ডেশনের দেওয়া দুটি আলমারি আছে, এগুলো প্রায় নষ্ট হয়ে গেছে। এছাড়াও কিছু পুরাতন পাখাসহ অন্যান্য জিনিসপত্র আছে। মসজিদ বানানোর পর এসকল জিনিসপত্র নতুন করে কেনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তখন বর্তমান জিনিসপত্রের কোনো প্রয়োজন থাকবে না। রেখে দিয়ে কোনো লাভও হবে না। উক্ত জিনিসগুলো ওয়াকফকৃত হওয়ায় তা কী করা হবে- এ নিয়ে দ্বিমত হচ্ছে। কেউ বলছে, এগুলো বিক্রি করা যাবে না। অনেকে এগুলো বিক্রি করে তার অর্থ মসজিদের কাজে ব্যবহার করতে বলছেন। জানার বিষয় হল, এই জিনিসগুলো রেখে দেওয়ার মাঝে কোনো লাভ নেই, তাই এগুলো বিক্রি করে মসজিদের কাজে ব্যয় করার শরয়ী বিধান কী? জানিয়ে বাধিত করবেন।

উত্তর

মসজিদের জন্য ওয়াকফকৃত বস্তু প্রয়োজন অতিরিক্ত হয়ে গেলে বা ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে গেলে তা বিক্রি করে সে টাকা মসজিদের কাজে ব্যয় করা জায়েয। এতে কোনো সমস্যা নেই। তাই প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে জিনিসগুলো যখন প্রয়োজন হবে না তখন তা বিক্রি করে দেওয়া বৈধ হবে।

-খুলাসাতুল ফাতাওয়া ৪/৪২৪; আলমাবসূত, সারাখসী ১২/৪২; হাশিয়াতুশ শুরুমবুলালী আলা দুরারিল হুক্কাম ২/১৩৫; আলবাহরুর রায়েক ৫/২৫২

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement