শাওয়াল ১৪৪০ || জুন ২০১৯

মুহাম্মাদ আলাউদ্দিন - মনোহরগঞ্জ, কুমিল্লা

৪৭৯৫. প্রশ্ন

অনেকে বলে থাকেন, এখন তো সকল চাকরিতেই ঘুষ দিতে হয় এবং কোনো প্রতিষ্ঠান বা কারবারই সুদমুক্ত নয়।  তাহলে কি তার জন্য সবধরনের প্রতিষ্ঠান এমনকি ব্যাংক-বীমারও চাকরি করা বৈধ হবে?

উত্তর

বর্তমানে দ্বীন ও নৈতিকতার অবক্ষয়ের কারণে সমাজে সুদ ও ঘুষের ব্যাপকতা ঘটেছে। তবে এর অর্থ এই নয় যে, সুদ-ঘুষ ছাড়া কোনো চাকরি বা অন্য কোনো হালাল উপায়ে জীবন নির্বাহ করা যায় না। আর হালাল পণ্য বিক্রি বা উৎপাদনকারী কোম্পানী বা প্রতিষ্ঠান ব্যাংক থেকে লোন নিলেও সেখানে চাকরি করা বৈধ। এক্ষেত্রে সুদী লোন গ্রহণ সম্পূর্ণ হারাম হলেও এ ধরনের প্রতিষ্ঠানে চাকরি আর ব্যাংকের চাকরির হুকুম এক নয়। দুটির হুকুমের মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। ব্যাংক-বীমা সুদী কোম্পানী এবং তাদের মূল কাজ সুদভিত্তিক। বিধায় সেখানে চাকরি করা নাজায়েয।

মোটকথা, সব চাকরিতেই সুদ-ঘুষ রয়েছে- ঢালাওভাবে এমন কথা বলে ব্যাংক-বীমা বা একেবারে হারাম চাকরিতে থাকার ওজর দাঁড় করানো যাবে না। একজন মুমিন হিসাবে হালাল রুজির সন্ধান চালিয়ে যেতে হবে। আল্লাহ তাআলা যখন হালাল রুজির নির্দেশ দিয়েছেন তখন এর সুযোগও থাকবে অবশ্যই।

আর চাকরি সংক্রান্ত মাসআলা জানতে হলে কোনো নির্ভরযোগ্য আলেম থেকে জেনে নিতে হবে। তাহলে হালালভাবে চলা সহজ হবে ইনশাআল্লাহ।

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement