শাবান-রমযান ১৪৪০ || এপ্রিল-মে ২০১৯

আখতার বিন কামাল - মিরপুর, ঢাকা

৪৭৭৭. প্রশ্ন

সম্মানিত মুফতী সাহেব হুজুর! আমাদের জানার বিষয় হল :

১. ‘আল্লাহ’ এই সম্মানিত নামটির পরে  আমরা যে ‘তাআলা’ শব্দটি ব্যবহার করি, যেমন ‘আল্লাহ তাআলা’- এই তাআলা ব্যবহার করা কি সহীহ, না শুধু আল্লাহই বলব বা লিখব।

২. আর ‘আল্লাহ’ এই সম্মানিত নামটির পর যে ‘তাআলা’ ব্যবহার করি, এই তাআলার অর্থ কী? আর ‘তাআলা’ যদি না লিখি বা না বলি তবে কি ভুল বা গুনাহ হবে? একজন জ্ঞানী বলেন, আল্লাহ তো আল্লাহই; কেন আবার আল্লাহর নামের সাথে তাআলা ব্যবহার করা। যাক যেটা সঠিক সেটাই আমাদের জানিয়ে উপকৃত করবেন।

উত্তর

‘তাআলা’ অর্থ মহান, শ্রেষ্ঠ ও সুউচ্চ মর্যাদাসম্পন্ন। ‘আল্লাহ তাআলা’ অর্থ আল্লাহ মহান, আল্লাহ সুউচ্চ মর্যাদাসম্পন্ন। এটি আল্লাহর পবিত্রতা ও মর্যাদাসূচক শব্দ। যা তার নামের সাথে ব্যবহার হয়ে থাকে।

‘আল্লাহ’র নামের সাথে এভাবে সম্মানসূচক ও গুণবাচক কোনো শব্দ যোগ করে বলা বা লেখা মুস্তাহাব। এটা আদবের অন্তর্ভুক্ত। যেমন আল্লাহ তাআলা, আল্লাহ তাবারাকা ওয়া তাআলা, আল্লাহ আয্যা ওয়া জাল্লা, আল্লাহ রাব্বুল আলামীন ইত্যাদি। অবশ্য শুধু ‘আল্লাহ’ বলা বা লিখাও জায়েয।

-ফাতাওয়া বাযযাযিয়াহ ৬/৩৫৪; ফাতাওয়া সিরাজিয়্যাহ পৃ. ৭২; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ৫/৩১৫

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement