যিলক্বদ ১৪৩৮ || আগস্ট ২০১৭

মুহাম্মদ আব্দুল্লাহ - সিলেট

৪১৪৮. প্রশ্ন

হুযুর আমি একজন মাদরাসার ছাত্র। আমার বাবা, ভাই কেউ নেই। অপর দিকে আয় উপার্জনেরও আমার কোনো ব্যবস্থা নেই। তাই একজন আলেম আমার হিতাকাক্সক্ষী হয়ে বলেছেন যে, আমি উনাকে ৫০,০০০/- টাকা দিলে মাসে দুই হাজার বা আড়াই হাজার টাকা তিনি ব্যবসা করে আমাকে দিবেন এবং আমার মূল টাকা আমি চাইলে দাওরা পাশ করার পর ফেরত দিবেন।

মুহতারামের নিকট জানতে চাচ্ছি, এই পন্থায় টাকা নেওয়া বৈধ হবে কি?

উত্তর

প্রশ্নে উল্লেখিত পন্থায় ব্যবসার জন্য টাকা দেওয়া জায়েয হবে না। কেননা এতে নির্দিষ্ট অংকে ২০০০/২৫০০ টাকা মুনাফা গ্রহণের চুক্তি করা হয়েছে।

দ্বিতীয়ত মূল টাকা অক্ষতভাবে ফেরৎ দেওয়ার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। যেহেতু উক্ত দুটি বিষয়ই সুদী চুক্তির বৈশিষ্ট্য তাই এমন চুক্তি থেকে বিরত থাকা আবশ্যক।

উল্লেখ্য যে, ঐ ব্যক্তির যদি বাস্তবেই কোনো হালাল ব্যবসা থাকে, তাহলে তার ব্যবসায় আপনি মুদারাবা ভিত্তিতে বিনিয়োগ করতে পারেন। বিনিয়োগের শরীয়তসম্মত আরো পন্থা রয়েছে। বিস্তারিত জানতে হলে নির্ভরযোগ্য কোনো ফতোয়া বিভাগ থেকে জেনে নিতে পারেন।

-কিতাবুল আসার, ইমাম মুহাম্মাদ ৭৬৪; কিতাবুল আছল ৪/১২৯; বাদায়েউস সনায়ে ৫/১১৯; শরহুল মাজাল্লাহ, খালেদ আতাসী ৪/৩৩৪

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement