যিলহজ্ব ১৪৩৮ || সেপ্টেম্বর ২০১৭

মুহিব ইমতিয়াজ - কোনাপাড়া, ডেমরা, ঢাকা

৪১৮৪. প্রশ্ন

 

আমি একটা বিষয়ে জানতে চাচ্ছি, কিছুদিন আগে আমার এক ফুফাতো ভাইয়ের খৎনা করানো হয়েছে। তার বয়স মাত্র দু’বছর। আমার বড় দাদু এতে বেশ রেগে যান এবং বলেন, এতো ছোট বাচ্চাকে এতোটা কষ্ট দেওয়া বড় অন্যায় হয়েছে। খৎনার জন্য কমপক্ষে ছয়-সাত বৎসর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়। যেন বাচ্চা এর ধকলটা সহ্য করে নিতে পারে।

কিন্তু ভালো ডাক্তারের পরামর্শ ও উন্নত চিকিৎসার ফলে আমাদের মনেই হয়নি যে, খৎনার কারণে ওর ততোটা কষ্ট সহ্য করতে হয়েছে। তারপরও দাদুর কথায় সন্দেহ হচ্ছে, এত কম বয়সে খৎনা করানো ঠিক কি না?

তাই হুযুরের কাছে জানতে চাই, খৎনার জন্য নির্দিষ্ট কোনো সময় বা বয়স আছে কি না? দয়া করে এ ব্যাপারে শরীয়তের বিধান জানিয়ে বাধিত করবেন।

 

উত্তর

খৎনার জন্য সুনির্দিষ্ট কোনো বয়স নেই। তবে বালেগ হওয়ার আগে আগেই তা করিয়ে নেয়া উচিত। যেমন সাত থেকে দশ বছরের মধ্যে করিয়ে ফেলা বাঞ্ছনীয়। বাচ্চার বেশি কষ্ট না হয় এবং বুঝের বয়স হয় এমন সময় খৎনা করানো যায়। খৎনা পরবর্তী জটিলতার আশংকা না থাকলে কম বয়সেও খৎনা করানো যাবে। শরীয়তের দৃষ্টিতে এতে দোষের কিছু নেই।

-আলমুহীতুল বুরহানী ৮/৮৫; খিযানাতুল আকমাল ৩/৪৭০; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ৫/৩৫৭

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement