যিলহজ্ব ১৪৩৮ || সেপ্টেম্বর ২০১৭

মোল্লা মুহাম্মাদ সাইফুল্লাহ - হাজিবাড়ী, নরসিংদী

৪১৭০. প্রশ্ন

কেউ যদি কোনো প্রয়োজনে প্রচলিত নিয়মে জমি বন্ধক দিয়ে ঋণ নেয় (অর্থাৎ যতদিন ঋণ আদায় না করবে ততদিন ঋণদাতা জমি ভোগ করবে, ঋণ আদায় করলে কোনো কর্তন ব্যতীতই জমি ফেরত দিবে) এবং এই টাকা তার ব্যবসায় বিনিয়োগ করে তাহলে তার সম্পূর্ণ আয় কি হারাম বলে গণ্য হবে? দয়া করে জানাবেন।

 

উত্তর

ঋণ দিয়ে বিনিময়ে বন্ধকী জমি থেকে উপকৃত হওয়া সুদের অন্তর্ভুক্ত। তাই এ ধরনের চুক্তিতে ঋণ আদান-প্রদান করা নাজায়েয। আর যেহেতু প্রশ্নোক্ত টাকাগুলো অর্জিত হয়েছে নাজায়েয চুক্তির উপর ভিত্তি করেই তাই এ টাকা দিয়ে ব্যবসা করা কোনো ক্রমেই ঠিক হবে না; বরং যত দ্রুত সম্ভব টাকাগুলো মালিককে ফিরিয়ে দিতে হবে। এরপর যদি সে বন্ধক ফিরিয়ে দিয়ে করজে হাসানা দিতে রাজি হয় অথবা শরীয়তসম্মত কোনো পন্থায় বিনিয়োগ করে তাহলে সেক্ষেত্রে এ টাকা দিয়ে ব্যবসা করা যাবে এবং মুনাফাও গ্রহণ করা যাবে।

স্মরণ রাখা দরকার যে, অবৈধ পন্থায় কারো কাছ থেকে টাকা নিয়ে তা দ্বারা ব্যবসা করা শরীয়তসম্মত নয় এবং  তাতে কোনো বরকত নেই।

-মুসান্নাফে আবদুর রাযযাক, বর্ণনা ১৫০৭১; রদ্দুল মুহতার ৬/৪৮২; শরহুল মাজাল্লাহ ৩/১৯৪

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement