যিলহজ্ব ১৪৩৮ || সেপ্টেম্বর ২০১৭

আহমাদুল্লাহ মাসুম - লালমনিরহাট

৪১৬৪. প্রশ্ন

আমার বাবা গত মাসে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্তেকালের আগে তিনি একটি অসিয়তনামা লিখে যান। তাতে লিখা আছে-

‘আমার উপর প্রায় ২০ টি কসমের কাফফারা অবশিষ্ট রয়েছে। তোমরা সেগুলো আমার রেখে যাওয়া সম্পদ থেকে আদায় করে দিও।’

আমরা সকল ওয়ারিশগণ তার কসমের কাফফারা আদায় করতে প্রস্তুত রয়েছি। জানতে চাচ্ছি-

ক. তাঁর সবক’টি কসমের জন্য একটি কাফফারা আদায় করলে যথেষ্ট হবে নাকি প্রত্যেকটির জন্য আলাদা আলাদা কাফফারা লাগবে?

খ. কসমের কাফফারা আদায়ের নিয়ম কী?

উত্তর

ক. যতগুলো কসম ভঙ্গ হয়েছে সবগুলোর জন্য পৃথক পৃথক কাফফারা আদায় করা জরুরি। সবগুলোর জন্য একটি কাফফারা আদায় করা যথেষ্ট নয়। -আলমাবসূত, সারাখসী ৮/১৫৭; রদ্দুল মুহতার ৩/৭১৪; ফাতহুল কাদীর ৫/২

খ. প্রত্যেকটি কাফফারার জন্য প্রাপ্তবয়স্ক দশজন দরিদ্রকে দু’বেলা তৃপ্তিসহকারে আহার করানো বা দু’বেলা খাবারের মূল্য দিয়ে দেওয়া অথবা তাদের প্রত্যেককে একজোড়া পরিধেয় বস্ত্র দেওয়া আবশ্যক। -সূরা মায়েদা (৫) : ৮৯; ফাতহুল কাদীর ৪/৩৬৫; আদ্দুররুল মুখতার ৩/৭২৫

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement