যিলহজ্ব ১৪৩৮ || সেপ্টেম্বর ২০১৭

আবদুল হান্নান - মোমেনশাহী

৪১৬০. প্রশ্ন

আমি মীনায় কংকর নিক্ষেপ করার পর কিছুটা অসুস্থ হয়ে পড়ি। তাই তাওয়াফে যিয়ারত করতে বিলম্ব হয়ে যায়। ইচ্ছা ছিল, ১২ যিলহজ্ব মীনা থেকে কংকর নিক্ষেপ করে এসে তাওয়াফ করব। কিন্তু মীনা থেকে আসার পর প্রচ- ভীড় দেখে তাওয়াফ করার সাহস হয়নি। মাগরিবের পর ভীড় কমে গেলে তাওয়াফ করেছি। ১২ যিলহজ্ব মাগরিবের পর তাওয়াফ করার কারণে কি আমার উপর কোনো জরিমানা ওয়াজিব হবে?
 

উত্তর

হাঁ, ১২ যিলহজ্ব মাগরিবের পর তাওয়াফে যিয়ারত করার কারণে আপনার উপর একটি জরিমানা দম ওয়াজিব হয়েছে। কারণ, ১০ যিলহজ্ব সুবহে সাদিক থেকে ১২ যিলহজ্ব সূর্যাস্ত পর্যন্ত তাওয়াফে যিয়ারতের নির্ধারিত সময়। এ সময়ের পর তাওয়াফে যিয়ারত করলে দম ওয়াজিব হয়। ইবরাহিম নাখায়ী রাহ. থেকে বর্ণিত তিনি বলেন,

إِذَا تَرَكَهُ حَتَى مَضى تِلْكَ الْأَيَامُ أَهْرَقَ لِذَلِكَ دَمًا.

যে ব্যক্তি নির্ধারিত দিনগুলোর মধ্যে তাওয়াফে যিয়ারত করল না সে যেন একটি দম আদায় করে। -মুসান্নাফে ইবনে আবী শাইবা, হাদীস ১৩২২৭

প্রকাশ থাকে যে, দম অর্থ এক বছর বয়সী ছাগল, ভেড়া বা দুম্বা যবাই করা। অথবা গরু, মহিষ বা উটের সাত ভাগের এক ভাগ কুরবানী করা। আর এ দমের পশু হেরেমে মক্কীর সীমানার ভেতরেই জবাই করা জরুরি। অতএব নিজে যাওয়া সম্ভব না হলে মক্কায় অবস্থানকারী অথবা হেরেমে গমণকারী কারো মাধ্যমে সেখানেই এই দমের পশু জবাই করতে হবে। হেরেমের বাইরে জবাই করলে দম আদায় হবে না।

-আলমাবসূত, সারাখসী ৪/৪১, ৪২; রদ্দুল মুহতার ২/৬১৯; মানাসিক, মোল্লা আলী আলকারী পৃ. ৩৪৮

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement