রবিউল আউয়াল ১৪৩৯ || ডিসেম্বর ২০১৭

আব্দুল আলীম - ওয়েব থেকে প্রাপ্ত

৪২৮২. প্রশ্ন

জনাব, আমাদের দেশে এবং দেশের বাহিরেও অনেক লোককে দেখা যায় যে, তারা আবা পরিধান করে। অধিকাংশ ব্যবহারকারীকে দেখা যায় যে তাদের টাখনুর নিচে ঝুলে থাকে। অথচ আমরা জানি যে, টাখনুর নিচে কাপড় পরিধান করা নিষেধ। আবা কি এ হুকুমের অন্তর্ভুক্ত নয়?
 

উত্তর

আবাসহ সব ধরনের পোষাকই পুরুষের জন্য টাখনুর নিচে ঝুলিয়ে পরা নাজায়েয। একটি হাদীসে লুঙ্গি, জামা এবং পাগড়িকেও টাখনুর নিচে ঝুলিয়ে পরতে নিষেধ করা হয়েছে। হযরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন-

الْإِسْبَالُ فِي الْإِزَارِ، وَالْقَمِيصِ، وَالْعِمَامَةِ، مَنْ جَرّ مِنْهَا شَيْئًا خُيَلَاءَ، لَمْ يَنْظُرِ اللهُ إِلَيْهِ يَوْمَ الْقِيَامَةِ.

লুঙ্গি, জামা এবং পাগড়ির ক্ষেত্রে (টাখনুর নিচে) ঝুলিয়ে পরার একই বিধান। যে ব্যক্তি এগুলোর কোন একটি অহংকার বশত (টাখনুর নিচে) ঝুলিয়ে পরবে কিয়ামতের দিন আল্লাহ তার দিকে দৃষ্টি দিবেন না। (সুনানে আবু দাউদ, হাদীস ৪০৯১)

এছাড়া বিভিন্ন হাদীসেও এ ব্যাপারে কঠিন ধমকি এসেছে। তাই পুরুষের জন্য শরীরের কোনো কাপড় যেন টাখনুর নিচে চলে না যায় সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।

-মুআত্তা ইমাম মালেক, হাদীস ৩৩৯০; শরহে মুসলিম, নববী ১৪/৬২; আলইসতিযকার ৭/৩১৪; বযলুল মাজহুদ ১৬/৪২৪

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement