যিলহজ্জ্ব ১৪৩০ || ডিসেম্বর ২০০৯

হযরত মাওলানা সরফরায খান ছফদর রাহ.-এর তাসানীফের তালিকা -

প্রশ্ন

মুহাম্মাদ যাকারিয়া আবদুল্লাহ (পূর্ব প্রকাশিতের পর আলকাউসার শাবান-রমযান ৩০ ও শাওয়াল ’৩০ সংখ্যায় তাঁর ২১টি কিতাবের নাম সংক্ষিপ্ত পরিচিতিসহ উল্লেখ করা হয়েছিল। এ সংখ্যায় আরো কিছু কিতাবের নাম দেওয়া হল।

উত্তর

২২. শওকে হাদীস হাদীস শরীফের অন্বেষণ ও সংরক্ষণের বিষয়ে মুহাদ্দিসীনে কেরামের অতুলনীয় ত্যাগ ও কুরবানী এবং তাঁদের সততা, সত্যবাদিতা ও সূক্ষ্মদর্শিতা সম্পর্কে এ কিতাবে আলোচনা করা হয়েছে। হাদীস সংরক্ষণের বিভিন্ন পদ্ধতি ও তার সফলতা এবং মুনকিরীনে হাদীসের বিভিন্ন অসার আপত্তির ব্যাপারেও সংক্ষিপ্ত আলোকপাত করা হয়েছে। ২৪ রবিউছ ছানী ১৩৬৯ হিজরী মোতাবেক ১২ ফেব্রুয়ারি ১৯৫০ ঈসায়ী তারিখে কিতাবটির রচনা শুরু হলেও মাঝে দীর্ঘ সময় তা মুলতবী থাকে। তাই দীর্ঘ দিন পর ২ যিলকদ ১৩৯০ হিজরী, মোতাবেক ৩১ ডিসেম্বর ১৯৭০ ঈসায়ী তা সমাপ্ত হয়। ২০০২ ঈসায়ী পর্যন্ত এর তিনটি সংস্করণ প্রকাশিত হয়েছে। পৃষ্ঠাসংখ্যা ১৭৮। ২৩. নূর ওয়া বাশার এটি তাঁর স্বলিখিত রচনা নয়। ফাইযায় আহমদ ছাওয়াতী হযরত মাওলানা রাহ.-এর বিভিন্ন কিতাব থেকে তা সংকলন করেন। সফর ১৪১১হিজরীর দিকে তা সমাপ্ত হয়। পৃষ্ঠা সংখ্যা ১৩০। ২৪. ‘মাসআলায়ে কুরবানী’ কুরবানী সম্পর্কে মুনকিরীনে হাদীস গোষ্ঠীর প্রোপাগাণ্ডা খণ্ডন করে লিখিত। হজ্বের কুরবানী ছাড়াও সাধারণ কুরবানীর বিধানও যে কুরআন ও সুন্নাহ দ্বারা অকাট্যভাবে প্রমাণিত তা এই কিতাবের আলোচ্য বিষয়। এই মৌলিক বিষয়ের পাশাপাশি একটি শাখাগত মাসআলা-কুরবানী কতদিন করা যায় এ সম্পর্কেও আলোচনা করেছেন। সমাপ্তির তারিখ ১৩ রবীউল আওয়াল ১৩৭৪ হিজরী, মোতাবেক ৯ নভেম্বর ১৯৫৪ ঈসায়ী। আগস্ট ১৯৮৩ ঈসায়ী পর্যন্ত এর তিনটি সংস্করণ প্রকাশিত হয়েছে। পৃষ্ঠা সংখ্যা ৪২। ২৫. খাযাইনুস সুনান তাঁর তিরমিযী শরীফের দরসী তাকরীর। মাওলানা রশীদুল হক খান তা সংকলন করেন। ২৬. দিল কা ছুরূর কুরআন-সুন্নাহ, আছারে সাহাবা ও জুমহুরে সালাফ ও খালাফের উদ্ধৃতিতে প্রমাণ করা হয়েছে যে, বিশ্বজগতে একমাত্র আল্লাহ তাআলাই হলেন মুখতারে কুল। তাঁরই আদেশে বিশ্বজগতের সকল কিছু পরিচালিত হয়। এ বিষয়ে যারা বিভ্রান্তি ছড়ায় তাদের অসার যুক্তিসমূহের স্বরূপ উন্মোচন করা হয়েছে। এছাড়া আরো কিছু কিতাব, যা সরাসরি সৌভাগ্য না হলেও মাকতাবায়ে ছফদরিয়ার প্রকাশনার তালিকা থেকে তা উল্লেখ করছি। ছামায়ে মাওতা দরূদ শরীফ পড়নে কা শরয়ী তরীকা ইহসানুল বারী তাবলীগে ইসলাম চেরাগ কী-রৌশ্নী ঈসাইয়্যাত কা পছমানযার মাকালায়ে খতমে নবুওয়ত বানিয়ে দারুল উলূম দেওবন্দ রাহে হেদায়েত ইতমামুল বুরহান ফী রাদ্দি তাওযীহিল বয়ান হিলয়াতুল মুসলিমীন ইনকারে হাদীস কে নাতাইজ আলকালামুল হাভী।

এই সংখ্যার অন্যান্য শিক্ষা পরামর্শসমূহ পড়ুন