জুমাদাল উলা ১৪৪১ || জানুয়ারি ২০২০

আব্দুর রহমান - হবিগঞ্জ

৫০০৩. প্রশ্ন

আমি কিছুদিন আগে একটি ঘড়ি ক্রয় করি। কেনার পর ত্রুটি ধরা পড়লে আমি ঘড়িটি ফেরত দিতে যাই। তখন বিক্রেতা বলেন- আমি আপনাকে কিছু টাকা ফেরত দিচ্ছি, আপনি ঘড়িটি রেখে দিন। আমি কিছু টাকা ফেরত নিয়ে ঘড়িটি রেখে দিই। পরে ইমাম সাহেবকে বিষয়টি বললে তিনি বলেন- ত্রুটির কারণে কিছু টাকা ফেরত নিয়ে ঘড়িটি রেখে দেওয়া বৈধ হয়নি। আপনি ঘড়ি রাখতে চাইলে বিক্রেতা থেকে কোনো টাকা ফেরত নিতে পারবেন না। অন্যথায় ঘড়িটিই ফেরত দিতে হবে। হুযুরের কাছে জানার বিষয় হল, কিছু টাকা ফেরত নিয়ে ঘড়ি রেখে দেওয়া বৈধ হয়েছে কি না? আর ইমাম সাহেবের কথা ঠিক কি না? মাসআলাটির সমাধান জানালে খুবই উপকৃত হব।

উত্তর

প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে বিক্রেতা যেহেতু নিজে থেকেই স্বেচ্ছায় আপনার সাথে এভাবে সমঝোতা করেছেন এবং কিছু টাকা ফেরত দিয়ে ঘড়িটি রেখে দিতে অনুরোধ করেছেন তাই আপনার জন্য সে প্রস্তাব গ্রহণ করা বৈধ হয়েছে। এটি মূলত মূল্য ছাড় দেয়ার মত বিষয়। আর ইমাম সাহেব যে মাসআলা বলেছেন তা প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে না; বরং মাসআলাটি ঐক্ষেত্রে প্রয়োগ হবে, যেখানে ত্রুটি ধরা পড়ার পর বিক্রেতা সমঝোতা করতে সম্মত হবে না। তখন ক্রেতা পণ্যটি রাখতে চাইলে পুরো দাম দিয়েই রাখতে হবে। পণ্যও রাখবে আবার কিছু টাকাও ফেরত নেবে, বিক্রেতার সন্তুষ্টি ছাড়া এমনটি করা যাবে না।

-কিতাবুল আছল ১১/১৭০; আলমুহীতুল বুরহানী ১০/১৬৭; ফাতহুল কাদীর ৬/৪; আলবাহরুর রায়েক ৬/৬৭; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ৩/৯৭; আদ্দুররুল মুখতার ৫/৪৬

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement