জুমাদাল উলা ১৪৪০ || ফেব্রুয়ারি ২০১৯

মুহাম্মাদ আবু বকর - সদর, মোমেনশাহী

৪৬৯৭. প্রশ্ন

আমার স্বর্ণের এক দোকান আছে। প্রতি বছর রমযানের ১০ তারিখে আমার যাকাতবর্ষ পূর্ণ হয়। এ বছর মুহাররম মাসে আমার দোকানের সব স্বর্ণ চুরি হয়ে যায়। ফলে আমি অনেক অসহায় ও মানুষের কাছে ঋণী হয়ে যাই। আমার বড় মামা আমেরিকায় থাকেন। তিনি এ সংবাদ শুনে আমাকে কয়েক লক্ষ টাকা দিয়ে সাহায্য করেছেন। আমি  সেই টাকা দিয়ে পুনরায় ব্যবসা শুরু করি। আল্লাহর রহমতে বছর শেষে আমি আবার নেসাব পরিমাণ সম্পদের মালিক হয়ে যাই।

এখন মুফতী সাহেবের কাছে আমার জানার বিষয় হল, এ অবস্থায় কি আমার উপর যাকাত ফরয? নাকি পরবর্তী বছরে ফরয হবে?

উল্লেখ্য যে, উক্ত সম্পদ ছাড়া আমার কাছে যাকাতযোগ্য কোনো সম্পদ ছিল না।

উত্তর

প্রশ্নের বর্ণনা অনুযায়ী বছরের মাঝখানে যেহেতু আপনার উক্ত সম্পদের পুরোটাই চুরি হয়ে গেছে। এমনকি আপনি ঋণী হয়ে গেছেন এবং ঐ সময়ে আপনার কাছে যাকাতযোগ্য কোনো সম্পদও ছিল না, তাই এ বছরের শেষে নেসাব পরিমাণ সম্পদের মালিক হলেও আপনার উপর বিগত বছরের যাকাত ফরয নয়; বরং বছরের যে সময় থেকে আপনি পুনরায় নেসাব পরিমাণ সম্পদের মালিক হয়েছেন, তখন থেকে নতুন করে যাকাত বর্ষের হিসাব শুরু হবে এবং তখন থেকে এক বছর পূর্ণ হওয়ার পর আপনি যাকাত দিবেন।

-আলমাবসুত, সারাখসী ২/১৭২; বাদায়েউস সানায়ে ২/৯৮; ফাতহুল কাদীর ২/১৬৮; রদ্দুল মুহতার ২/৩০২; তাবয়ীনুল হাকায়েক ২/৭৯; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/১৭৬

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement