যিলহজ্ব ১৪৩৮ || সেপ্টেম্বর ২০১৭

কামরুল হাসান - লালমনিরহাট

৪১৭৫. প্রশ্ন

 

আমাদের গ্রামে খ্রিস্টান মিশনারীদের একটি গ্রুপ উচ্চমূল্যে জমি ক্রয় করছে। এখানে তারা মিশনারী স্কুল, চার্চ ও অন্যান্য ধর্মীয় কার্যক্রম পরিচালিত করবে।

তারা উচ্চমূল্য দেওয়ার কারণে আমার জমির আশেপাশের জমিগুলো ইতোমধ্যেই কিনে ফেলেছে। আমি প্রথমে তাদের কাছে জমি বিক্রি করব না বলে প্রতিজ্ঞা করেছিলাম। কিন্তু এখন তারা তাদের জমিতে কাঁটাতারের বেড়া দিয়েছে এবং আমার জমিতে যাওয়ার জন্য সরু একটি রাস্তা রেখেছে। এদিকে জানিয়ে দিয়েছে যে, ভবন তৈরির পরিকল্পনা করবে। এতে আমার জমিতে যাওয়া-আসার রাস্তা বন্ধ হলে এবং ফসল ফলানোর ক্ষেত্রে ক্ষতিগ্রস্ত হলে তারা দায়ী থাকবে না।

এমতাবস্থায় আমি যদি তাদের কাছে জমি বিক্রি না করি তাহলে ভবিষ্যতে জমিটি কারো কাছে বিক্রিও করতে পারব না। আবার কোন ফায়েদাও উঠাতে পারব না।

সুতরাং জানতে চাচ্ছি, সেখানে চার্চ তৈরি এবং খ্রিস্টধর্ম শিক্ষা দেওয়ার বিষয়টি জানা সত্ত্বেও কি আমি তাদের নিকট জমি বিক্রি করতে পারব? এবং এর অর্থ কি আমার জন্য হালাল হবে?

 

উত্তর

প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে আপনি যেহেতু জমিটি চার্চ বানানোর জন্য বিক্রি করছেন না; বরং বাধ্য হয়েই তাদের কাছে বিক্রি করছেন তাই তা বিক্রি করা এবং এর মূল্য গ্রহণ করা আপনার জন্য বৈধ হবে। এরপর তারা যা করবে এর দায়ভার তাদের উপর যাবে। আর যদি কোনোভাবে অন্যত্র বিক্রি করা সম্ভব হয় তবে জমিটি অন্য কারো কাছে বিক্রি করাই শ্রেয় হবে।

-খুলাসাতুল ফাতাওয়া ৪/৩৭৬; আদ্দুররুল মুখতার ৪/২৬৮; জাওয়াহিরুল ফিকহ ২/৪৩৯-৪৫৩

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement