সফর ১৪৩৯ || নভেম্বর ২০১৭

আমেনা বেগম - সদর, রংপুর

৪২২৫. প্রশ্ন

১. কিছুদিন আগে আমি ওমরার সফরে গিয়েছিলাম। সাথে ছিলেন বয়স্ক চাচাতো ভাই এবং চাচীজান। যেহেতু চাচী সার্বক্ষণিক সাথেই থাকবেন এবং ছিলেনও, তাই ভেবেছি চাচাতো ভায়ের সাথে সফর করতে দোষ নেই। তাছাড়া অনেকে এমনটা বলেছিলো। কিন্তু মাদরাসা পড়–য়া আমার ভাগিনা বলেছে আমাদের সফর করা ঠিক হয়নি। আবার কিছু কিছু লোক (যাদের মধ্যে আলেমও আছেন) বলেছেন কোনো অসুবিধা নেই।

বিষয়টা দলীলসহ জানতে চাই?

২. আরেকটি কথা হল আমার বয়স কিন্তু ষাট পার হয়ে সত্তরের কোঠায়। কোনো কোনো আলেমের মুখে শুনেছি, বয়স বেড়ে গেলে তার পর্দা করা জরুরি না। তা কি ঠিক?

৩. ইদানিং অনেক মহিলাকে দেখি হিজাব পরে, কিন্তু চেহারা ঢাকে না। তারা বলে যে, পর্দার জন্য চেহারা ঢাকতে হয় না। এসব কথা আমার কাছে কেমন কেমন লাগে। কথাগুলো আসলেই ঠিক না হলে বিষয়গুলো একটু দলীলসহ মজবুতভাবে যদি পেশ করেন হযরতের জন্য বিশেষ দুআ থাকবে ইনশাআল্লাহ!

উত্তর

১. মাহরাম পুরুষ ছাড়া আপনার জন্য ওমরার সফরে যাওয়া জায়েয হয়নি। নারীর জন্য মাহরাম ছাড়া সফরসম কিংবা এর চেয়ে বেশি দূরত্বের সফরে যাওয়া বৈধ নয়। এমনকি হজে¦র সফরে যেতেও নিষেধ করা হয়েছে। আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস রা. থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন,

لَا تَحُجّنّ امْرَأَةٌ إِلَّا وَمَعَهَا ذُو مُحْرِمٍ.

কোন নারী যেন মাহরাম ছাড়া হজ¦ না করে। Ñসুনানে দারাকুতনী, ২/২২২-২২৩

সুতরাং এজন্য আল্লাহর দরবারে তাওবা ইসতেগফার করতে হবে। তবে আপনার ওমরাটি আদায় হয়ে গেছে। Ñতাবয়ীনুল হাকায়েক ২/২৪২; আলবাহরুর রায়েক ২/৩১৫; আলমুহীতুল বুরহানী ৩/৩৯৪; বাদায়েউস সনায়ে ২/২৯৯

২. বয়স বেড়ে গেলে পর্দা করা জরুরি নয়Ñ এ কথা ঠিক নয়। ৬০ বছর বা এর বেশি হলেও পর্দার বিধান থাকে। তবে কোনো নারী যদি অনেক বেশি বৃদ্ধা হয়ে যান সেক্ষেত্রে তার জন্য চেহারা ঢাকার হুকুম শিথিল হয়ে যায়। তবে এমন বৃদ্ধার জন্যও পরিপূর্ণ পর্দা করে চলাই উত্তম। কুরআনে কারীমে আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেছেনÑ

وَ الْقَوَاعِدُ مِنَ النِّسَآءِ الّٰتِیْ لَا یَرْجُوْنَ نِكَاحًا فَلَیْسَ عَلَیْهِنَّ جُنَاحٌ اَنْ یَّضَعْنَ ثِیَابَهُنَّ غَیْرَ مُتَبَرِّجٰتٍۭ بِزِیْنَةٍ ؕ وَ اَنْ یَّسْتَعْفِفْنَ خَیْرٌ لَّهُنَّ ؕ وَ اللّٰهُ سَمِیْعٌ عَلِیْمٌ.

আর বয়স্কা বৃদ্ধা নারীগণ, যারা বিয়ের আশা রাখে না, তাদের কোনো অপরাধ নেই যদি তারা তাদের সৌন্দর্য প্রদর্শন না করে তাদের বহির্বাস খুলে রাখে। তবে এটা থেকে বিরত থাকাই তাদের জন্য উত্তম। আল্লাহ সর্বশ্রোতা, সর্বজ্ঞ।  [সূরা নূর (২৪) : ৬০] Ñআহকামুল কুরআন, জাস্সাস ২/৩৩৪; আলজামে লিআহকামিল কুরআন, কুরতুবী ১২/২০৩, ৯/৩৪৯; আহকামুল কুরআন, ইবনুল আরাবী ৩/১৪০১; এলাউস সুনান ১৭/৩৭৩

৩. পরপুরুষের সামনে নারীদের চেহারাও পর্দার অন্তুর্ভুক্ত। চেহারা ঢাকা জরুরি নয়Ñ এ কথা সম্পূর্ণ ভুল। কুরআনে কারীমে আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেছেনÑ

یٰۤاَیُّهَا النَّبِیُّ قُلْ لِّاَزْوَاجِكَ وَ بَنٰتِكَ وَ نِسَآءِ الْمُؤْمِنِیْنَ یُدْنِیْنَ عَلَیْهِنَّ مِنْ جَلَابِیْبِهِنَّ ؕ ذٰلِكَ اَدْنٰۤی اَنْ یُّعْرَفْنَ فَلَا یُؤْذَیْنَ ؕ وَ كَانَ اللّٰهُ غَفُوْرًا رَّحِیْمًا

হে নবী! আপনি আপনার স্ত্রীগণকে, কন্যাগণকে ও মুমিন নারীগণকে বলুন, তারা যেন তাদের চাদরের কিয়দাংশ নিজেদের উপর টেনে নেয়। এতে তাদেরকে চেনা সহজ হবে। ফলে তাদেরকে উত্যক্ত করা হবে না। আল্লাহ ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু। Ñসূরা আহযাব (৩৩) : ৫৯

উক্ত আয়াতের ব্যাখ্যায় আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস রা. বলেছেন, আল্লাহ তাআলা মুমিন নারীদেরকে আদেশ করেছেন যখন তারা কোনো প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হবে তখন যেন মাথার উপর থেকে ওড়না/চাদর টেনে স্বীয় মুখম-ল আবৃত করে। আর শুধু এক চোখ খোলা রাখে। (তাফসীরে তাবারী ১০/৩৩২)

মুহাম্মাদ ইবনে সীরীন রাহ. বলেন, আমি আবীদা সালমানী রহ.-কে উক্ত আয়াত সম্পর্ক জিজ্ঞাসা করলে তিনি বললেন, কাপড় দ্বারা ঢাকবে। তারপর তিনি এটি  (বোঝানোর জন্য) দেখাতে গিয়ে মাথা ও চেহারা ঢেকে নিলেন এবং একটি চোখ খোলা রাখলেন।

একই রকম ঘটনা ইবনে আওন রাহ. প্রমুখ

তাবেঈ থেকেও বর্ণিত আছে। (তাফসীরে তাবারী ১০/৩৩২)

আয়েশা রা. বলেনÑ

يَرْحَمُ اللَّهُ نِسَاءَ المُهَاجِرَاتِ الأُوَلَ لَمَّا أَنْزَلَ اللَّهُ {وَلْيَضْرِبْنَ بِخُمُرِهِنَّ عَلَى جُيُوبِهِنَّ} شَقَّقْنَ مُرُوطَهُنَّ فَاخْتَمَرْنَ بِهَا.

আল্লাহ তাআলা প্রথম শ্রেণীর মুহাজির নারীদের প্রতি দয়া করুন। আল্লাহ তাআলা যখন وَلْيَضْرِبْنَ بِخُمُرِهِنَّ عَلَى جُيُوبِهِنَّ আয়াতটি নাযিল করলেন তখন তারা নিজেদের চাদর ছিঁড়ে তা দ্বারা নিজেদেরকে আবৃত করেছিলেন। Ñসহীহ বুখারী, হাদীস ৪৭৫৮

উপরোক্ত হাদীসের ব্যাখ্যায় হাফেয ইবনে হাজার আসকালানী রাহ. বলেন,

فَاخْتَمَرْنَ أَيْ غَطَّيْنَ وُجُوهَهُنَّ.

তখন তারা মুখম-ল আবৃত করেছেন। (ফাতহুল বারী ৮/৩৪৭)

আল্লামা আইনী রাহ.ও উমদাতুল কারীতে একই ব্যাখ্যা করেছেন। (উমদাতুল কারী ১৯/৯২)

সুতরাং কুরআন-হাদীসের দলীল দ্বারা চেহারা ঢাকার বিষয়টি প্রমাণিত।

এ বিষয়ে আরো বিস্তারিত জানার জন্য দেখুন : মাসিক আলকাউসার, অক্টোবর ২০১২ ঈ.। Ñআহকামুল কুরআন, জাস্সাস ৩/৩৭২; তাফসীরে ইবনে কাসীর ৩/৮২৪; বাদায়েউস সনায়ে ৪/২৯৪

এই সংখ্যার অন্যান্য প্রশ্ন-উত্তর পড়ুন

advertisement
advertisement