হাবীবুর হরমান - নরসিংদী

৪০৬৯. প্রশ্ন

 ১. কয়েকদিন আগে এক মসজিদে জুমার নামায পড়ার সময় নামাযের আগে ইমাম সাহেব বললেন, কারো টাখনুর নিচে কাপড় থাকলে উঠিয়ে নিন। হুযুরের কাছে জানতে চাই, টাখনুর নিচে কাপড় থাকা অবস্থায় নামায পড়লে কি নামাযের কোনো সমস্যা হয়?

২. কুরআন শরীফের অল্প কয়েকটি সূরা আমার মুখস্ত আছে। তাহাজ্জুদ নামাযে যদি কেরাত লম্বা করার উদ্দেশ্যে একই সূরা এক রাকাতে বারবার পড়ি তাহলে কি কোনো সমস্যা আছে?

উত্তর

১. টাখনুর নিচে কাপড় পরা শরীয়তে নিষিদ্ধ। হাদীস শরীফে এসেছেরাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেন,

مَا أَسْفَلَ مِنَ الكَعْبَيْنِ مِنَ الإِزَارِ فَفِي النَّارِ  .

টাখনুর নিচের যে অংশ লুঙ্গী (ইত্যাদি) দ্বারা ঢাকা থাকবে তা জাহান্নামে যাবে। (সহীহ বুখারীহাদীস ৫৭৮৭)

আর নামাযের মধ্যে টাখনুর নিচে কাপড় থাকলে নামায  মাকরূহ হবে। আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রা. থেকে বর্ণিততিনি বলেন,

مَنْ أَسْبَلَ إِزَارَهُ فِي صَلَاتِهِ خُيَلَاءَ فَلَيْسَ مِنَ اللَّهِ فِي حِلٍّ وَلَا حَرَامٍ.

যে ব্যক্তি নামাযে অহঙ্কারবশতঃ নিজ কাপড় (পায়ের গিরার নিচে) ঝুলিয়ে রাখেআল্লাহ তার জন্য জান্নাত হালাল করবেন না এবং জাহান্নামও হারাম করবেন না। (সুনানে আবু দাউদহাদীস ৬৩৭)

অতএব নামায ও নামাযের বাইরে সর্বাবস্থায় যেন পুরুষের কাপড় টাখনু গিরার উপরে থাকে সে ব্যাপারে যতœবান হওয়া অবশ্য-কর্তব্য। -ইমদাদুল আহকাম ৪/৩৩৬

 

 

উত্তর : ২. নফল নামাযে এক রাকাতে কয়েকটি সূরাও পড়া যায়। তাই আপনার যে কয়টি সূরা মুখস্থ আছে সেগুলো দু রাকাতে মিলিয়ে পড়ে নিতে পারেন। এছাড়া নফল নামাযে একই রাকাতে একই সূরা বারবার পড়ারও সুযোগ আছে। তবে ফরয নামাযে ইচ্ছাকৃত এমনটি করা অনুত্তম। -ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/১০৭;হাশিয়াতুত তহতাবী আলাল মারাকী পৃ. ১৯৩

শেয়ার লিংক

সালেম আহমাদ - গাজীপুর

৪০৬৮. প্রশ্ন

কিছুদিন আগে আমি গ্রামের বাড়িতে যাই। সেখানে দুপুরের খাবার খাচ্ছিলাম। কয়েক লোকমা খেয়েছি মাত্র; ছোট ভাই জানাল, একটু আগে একটি মুরগি এ তরকারিতে মুখ দিয়ে কয়েকটি ছোট মাছ খেয়েছে। একটু খাওয়ার পরই সেটিকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এ কথা শুনে আমি আর সে তরকারি খাইনি। এখন জানার বিষয় হল, সে তরকারি না খাওয়া ঠিক হয়েছে কি না? আর যে মুরগি সর্বত্র ঘুরাফেরা করে তা কোনো তরকারিতে মুখ দিলে তা খাওয়ার হুকুম কী?

উত্তর

যে মুরগি এমন জায়গায় ঘুরাফেরা করে যেখানে নাপাকিতে মুখ দেওয়ার সুযোগ নেই যেমন আবদ্ধ বাসা-বাড়িতেসেটি কোনো খাবারে মুখ দিলে ঐ খাবার খাওয়া যাবে। তবে যে মুরগি বাইরে ঘুরাফেরা করে এবং নাপাকিতে মুখ দেওয়ার সম্ভাবনা থাকে তার ঠোঁটে বা মুখে বাহ্যত কোনো নাপাকি না থাকলেও সতর্কতামূলক বিধান হলতার মুখ দেওয়া খাবার খাওয়া মাকরূহ আর যদি ঠোঁটে নাপাকি লেগে থাকতে দেখা যায় তাহলে যাতে মুখ দিবে তা নাপাক হয়ে যাবে। প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে যে মুরগি মুখ দিয়েছে তা বাইরে ছাড়া মুরগি হলে ঐ তরকারি না খেয়ে আপনি ঠিকই করেছেন।

-মাবসূত, সারাখসী ১/৪৭-৪৮; শরহুল মুনইয়া ১৬৮; হাশিয়াতুত তহতাবী আলাল মারাকী ১৮-১৯

শেয়ার লিংক
advertisement
advertisement